জামায়াত নেতা সাঈদীর মুক্তির গুজবে ফেসবুকে ঘৃণা
Bangla Sangbad BD - News Dask 06/12/2020 01:58:11 pm

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

দেশে করোনাভাইরাসের এই সংকটময় মুহুর্তে মানবতাবিরোধী অপরাধে যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর নেতা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির গুজব নিয়ে সাধারণ মানুষের ভেতর ক্ষোভ দেখা গেছে। বিশ্ব যখন করোনাভাইরাস মোকাবিলায় ব্যস্ত বাংলাদেশও তখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পরিস্থিতি সামাল নিয়েছে। ঠিক এই সময় জামায়াত শিবিরের কর্মীরা আগামি ২ মে সাঈদী মুক্তি পাচ্ছেন বলে ফেসবুকে গুজব ছড়িয়ে দিচ্ছেন। যা সত‌্যি নয়। বরং সাঈদীর অপরাধ ঘৃণার চোখে ফেসবুকে ভেসে উঠছে।

ফেসবুকে পাঠকের ঘৃণা
জামায়াত নেতা  দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর মুক্তির গুজবে ফুটে উঠেছে তার পুরোনা পাপ-কর্ম। ১৯৭১ সালে সংঘটিত হত্যা, লুণ্ঠন, নির্যাতনসহ অন্তত ২০টি মানবতাবিরোধী অভিযোগের মধ্যে আটটি অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণিত হয়েছে। এর মধ্যে দুটো অপরাধে সর্বোচ্চ শাস্তি হিসেবে মৃত্যুদণ্ডের আদেশ দেয়া হয়।

ফরহাদ হোসেন নামের একজন পাঠক লিখেছেন এই লোকটিকে আমি ঘৃণা করি। তিনি পিরোজপুরের কলংক।  করোনাভাইরাসের মধ্যে তাকে মুক্তি দেওয়ার গুজব ছড়িয়ে দেশকে আরো অস্থিতিশীল করার চেষ্টা কেবল জামায়াতীরাই পারে।

আবু বকর নামের বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়া একজন শিক্ষার্থী লিখেছেন, একাত্তরের আগে ছিলেন মুদি দোকানদার ও তাবিজ বিক্রেতা। মুক্তিযুদ্ধকালে পাকিস্তানি সেনাদের সঙ্গে সখ্যতা গড়ে তুলে হয়ে গেলেন প্রথমে শান্তি কমিটির সদস্য ও পরে রাজাকার বাহিনীর কমান্ডার।

চট্টগ্রামের হালিশহরের বাসিন্দা গৃহিনী আনজুমান লিখেছেন, নিজে জড়িত থেকে, নেতৃত্ব বা সহযোগিতা দিয়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং রাজাকার বাহিনী নিয়ে সংঘটিত করলেন হত্যাযজ্ঞ, অগ্নিসংযোগ, লুট, ধর্ষণসহ জঘণ্যতম মানবতাবিরোধী নানা অপরাধ। আগের ‘দেইল্লা’ নামের সঙ্গে তাই রাজাকার যুক্ত হয়ে তাই কুখ্যাত হলেন ‘দেইল্লা রাজাকার’ নামে। তার মুক্তি অসম্ভব।

স্কুল শিক্ষক আবদুল করিম ঢাকার মোহাম্মদপুর থাকেন। তিনি গুজবের খবরে লিখেছেন, মুক্তিযুদ্ধের পরে দীর্ঘদিন পালিয়ে থাকার পর আবির্ভুত হলেন ‘আল্লামা মাওলানা’ পরিচয়ে। ওয়াজ করে বেড়ালেন দেশে-বিদেশে। কালক্রমে হলেন যুদ্ধাপরাধীদের দল জামায়াতের নায়েবে আমির। এভাবেই বাবা-মায়ের দেওয়া দেলোয়ার হোসেন শিকদার ওরফে ‘দেইল্লা’ বা ‘দেইল্লা রাজাকার’ নামক ব্যক্তিটি হয়ে গেলেন দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী। তাকে মুক্তি দেও য়া যাবে না।

তাবিজ বিক্রেতা থেকে রাজাকার কমান্ডার

বর্তমানে জামায়াতের নায়েবে আমির দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী পিরোজপুর জেলার তৎকালীন ইন্দুরকানীর (বর্তমানে জিয়ানগর উপজেলা) সাউথখালী গ্রামে ১৯৪০ সালের ২ ফেব্রুয়ারি জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতা মরহুম ইউসুফ আলী শিকদার।

তার প্রকৃত নাম দেলোয়ার হোসেন শিকদার। তাকে ‘দেইল্লা’ নামে সকলে চিনতেন। জামায়াতের ছাত্র রাজনীতি করার কারণে সাঈদী শর্ষিনা মাদ্রাসা থেকে বহিষ্কৃত হন। পরে বারইপাড়া মাদ্রাসা থেকে তৃতীয় বিভাগে আলিম পাস করেন। এরপর উচ্চতর ডিগ্রি না নিলেও নামের সঙ্গে আল্লামা টাইটেল ব্যবহার করছেন।

মুক্তিযুদ্ধের আগে শ্বশুর বাড়িতে ঘরজামাই থাকতেন সাঈদী। সংসার চালানোর জন্য পারেরহাটে তার একটি ছোট মুদি দোকান থাকলেও তিনি মূলত তাবিজ বিক্রি করতেন।

অভিযোগ করা হয়েছে, সাঈদী ছিলেন আরবি ও উর্দু ভাষায় পারদর্শী এবং বাকপটু। এটাকে ব্যবহার করে একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে পাকিস্তানি বাহিনীর সঙ্গে তিনি সখ্য এবং পাকিস্তানি সেনাবাহিনীর ক্যাপ্টেন এজাজের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক তৈরি করেন। এ কারণে তিনি রাজাকার বাহিনীর কমান্ডার হতে সক্ষম হন। অবশ্য মুক্তিযুদ্ধ শুরুর পর পরই তিনি ছিলেন শান্তি কমিটির সদস্যও। তার নেতৃত্বে এবং তার সহযোগিতায় পিরোজপুরের পারেরহাট বন্দরসহ বিভিন্ন এলাকায় পাকিস্তানি সেনাবাহিনী এবং রাজাকার বাহিনী হত্যাযজ্ঞ, অগ্নিসংযোগ, লুট, ধর্ষণসহ বিভিন্ন অপরাধ সংঘটিত করে।

দেইল্লা রাজাকার থেকে আল্লামা সাঈদী!

রাষ্ট্রপক্ষের অভিযোগ, সাঈদীর আসল নাম দেলোয়ার হোসেন শিকদার। একাত্তরের আগে তিনি পিরোজপুরে এ নামেই পরিচিত ছিলেন। লোকে তাকে প্রথমে ‘দেইল্লা’ এবং মুক্তিযুদ্ধকালে যুদ্ধাপরাধের জন্য ‘দেইল্লা রাজাকার’ নামেও চিনতেন। স্বাধীনতার পর একাত্তরের ১৯ ডিসেম্বর তিনি নিজের অপরাধকে আড়াল করার জন্য বোরকা পরে গরুর গাড়িতে চড়ে এলাকা ছেড়ে পালিয়ে যান। পরে অস্ত্রসহ যশোরের মো. রওশন আলীর বাড়িতে আত্মগোপন করেন। অনেকদিন পর তার অপরাধের কাহিনী জানাজানি হলে তিনি পরিবার নিয়ে অন্যত্র চলে যান।

 

Recent 10 News
বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচলে রেকর্ড
বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে পণ্যবাহী ট্রেন চলাচলে রেকর্ড 07/04/2020 04:53:02 pm
জামায়াত নেতা সাঈদীর মুক্তির গুজবে ফেসবুকে ঘৃণা
জামায়াত নেতা সাঈদীর মুক্তির গুজবে ফেসবুকে ঘৃণা 06/12/2020 01:58:11 pm
৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট পাস
৫ লাখ ৬৮ হাজার কোটি টাকার বাজেট পাস 07/02/2020 01:09:30 pm
বেশি বেশি পরীক্ষায় জোর সফররত চীনা চিকিৎসকদের
বেশি বেশি পরীক্ষায় জোর সফররত চীনা চিকিৎসকদের 06/23/2020 04:41:04 pm
বাড়ির কাজের উপর প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষার্থী মূল্যায়নে গুরুত্ব পাবে
বাড়ির কাজের উপর প্রাপ্ত নম্বর শিক্ষার্থী মূল্যায়নে গুরুত্ব পাবে 03/31/2020 12:58:00 pm
Visitor Statistics
  » 1  Online
  » 15  Today
  » 8  Yesterday
  » 63  Week
  » 43  Month
  » 6831  Year
  » 53313  Total
Record:04.07.2020
বানিজ্যিক কার্যালয়

১নং মকদম মুন্সী রোড, বাড়ি নং-১, পোঃ নিশাত নগর,
দাক্ষিন আউচপাড়া, বটতলা, টংগী, গাজীপুর।
মোবাইলঃ ০১৭১১-৫৩৬৭৯৫

মহানগর কার্যালয়

৭৩-আব্দুল্লাহ্পুর (পেপার মিল রোড),
উত্তরা, ঢাকা-১২৩০।
মোবাইল: ০১৯১১-৪৬২৯১৭, ০১৫৫২-৩০৭৯৩০

সম্পাদক

মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন (বাবুল)

সহঃ সম্পাদক

ডাঃ মো: জুনায়েদ বাগদাদী ।

প্রকাশক

মোঃ জাহিদ আহসান রাসেল এমপি
মাননীয় প্রতিমন্ত্রী , যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়,
গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার।

আমরা জনগন এর পক্ষে !!!                                 সত্যের সন্ধানে আমরা প্রতিদিন !!!

এন্ড নিউজে প্রকাশিত, প্রচারিত সংবাদ, আলোকচিত্র, ভিডিওচিত্র, বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করা বেআইনি | © 2020 All Rights Reserved Andnews24.com | Maintened by Sors Technology