ঢাকা শুক্রবার | ১৯শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
আজকের সর্বশেষ সবখবর

‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডের’ লোগো উন্মোচন

admin
অক্টোবর ২০, ২০২০ ১১:২৩ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার’ অ্যাওয়ার্ডের লোগো উন্মোচন

‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডের’ লোগো উন্মোচন


‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ডের’ লোগো উন্মোচন করলেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। সোমবার (১৯ অক্টোবর)  জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ মিলনায়তনে ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০’ এর লোগো উন্মোচন করা হয়।

করোনার সংকটময় মুহূর্তে সারা বিশ্বের যুবারা প্রমাণ করেছে যে তারা যেকোনো প্রতিকূল পরিস্থিতি মােকাবিলা করতে পারে এবং সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে পারে। জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে বাংলাদেশের এবং বৈশ্বিক যুবাদের এ অনন্য মানবিক অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ দেওয়া হবে ‘শেখ হাসিনা ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০২০’। যার মাধ্যমে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় যুবকদের একক ও দলীয়ভাবে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে পুরস্কার, সার্টিফিকেট ও সম্মাননা প্রদান করবে।

‘ঢাকা ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল ২০২০’-এর অধীনে প্রথমবারের মতো এ পুরস্কারের আয়োজন করেছে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়। সহযোগিতায় রয়েছে ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়ুথ ফোরাম (আইসিওয়াইএফ), ওআইসি ইয়ুথ ক্যাপিটাল, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়।

লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী মো. জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, ‘২০২০ সালটি আমাদের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্বপূর্ণ কেননা এ বছর আমরা আমাদের জাতির পিতা, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন করছি। যে কোন আন্দোলনে বঙ্গবন্ধু যে অসীম সাহস প্রদর্শন করেছেন তা জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে বিশেষ করে যুবসমাজের জন্য আজও অনুপ্রেরণা হিসেবে কাজ করে।’

প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল বলেন, সারা বিশ্ব এখন অভিন্ন শত্রুর বিরুদ্ধে লড়াই করছে। সে লড়াইয়ে শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ লড়ছে। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশে করোনার লাগাম টেনে ধরা সম্ভব হয়েছে। সারা বিশ্বের আর কোনো জননেতাকে করোনাকালে এতো পরিশ্রম করতে দেখা যায়নি। যা সারা বিশ্বে প্রশংসিত হয়েছে।

তিনি বলেন, সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশের তরুণরাও করোনার কালে মানুষের পাশে ছিলেন। নিজেদের জীবনকে ঝুঁকির মধ্যে ফেলে তারা মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। তাদের এ অবদানের স্বীকৃতি দেওয়ার জন্য এ পুরস্কার দেওয়া হবে। যা অব্যাহত থাকবে।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মাসুদ বিন মোমেন। তিনি বলেন, ‘এটা অত্যন্ত আনন্দের বিষয় যে অ্যাওয়ার্ডটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নামে দেয়া হচ্ছে। যিনি তার সুযোগ্য নেতৃত্বে বাংলাদেশকে দারীদ্রপ্রবণতা থেকে মুক্ত করেছেন। বাংলার সভ্যতা ঐতিহ্যগতভাবেই মানবতা, মানবিক মূল্যবোধ এবং ইসলামী সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যের ভিত্তির উপর স্থাপিত।’

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথি হিসেবে যোগদান (ভার্চুয়াল) করেন ইসলামিক কো-অপারেশন ইয়্যুথ ফোরামের সভাপতি তাহা আইহান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আখতার হোসেন।

লোগো উন্মোচন অনুষ্ঠানে ১০টি ক্যাটাগরিতে অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ঘোষণা দেয়া হয়। ক্যাটাগরি গুলো হচ্ছে – মোস্ট ইন্সপায়ারিং ভলান্টিয়ার স্টোরি, মোস্ট ইমপ্যাক্টফুল ইনিশিয়েটিভ, বেস্ট ইনোভেটিভ আইডিয়া, কর্পোরেট সাপোর্ট ইন ভলান্টারি ইয়ুথ অ্যাক্টিভিটিস, মোস্ট ইমপ্যাক্টফুল মিডিয়া পার্সোনেল, কমিউনিটি লিডারশিপ অ্যান্ড সার্ভিস, ইনভায়রনমেন্টাল রেসপন্স, অ্যাক্ট অব ব্রেভারি, সার্ভিস এক্সেলেন্স এবং আউটস্ট্যান্ডিং ভলান্টিয়ার অর্গেনাইজেশন।

আগ্রহীরা আগামী ১লা নভেম্বর ২০২০ থেকে https://www.youthpowerhouse.org/ ওয়েবসাইটে গিয়ে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন এবং প্রতিযোগিতা সম্বন্ধে বিস্তারিত জানতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশন চলবে আগামী ৩১শে নভেম্বর পর্যন্ত।

জাতীয় পর্যায়ের বিজয়ীগণ পুরষ্কার ও সার্টিফিকেট ছাড়াও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে ‘শেখ হাসিনা গ্লোবাল ইয়ুথ ভলান্টিয়ার অ্যাওয়ার্ড’ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করার সুযোগ পাবেন।